স্বপ্নের পদ্মা সেতু

ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে শ্রমিকদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে শ্রমিকদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

নওগাঁ প্রতিনিধিঃ
নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার শ্রীমন্তপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য মুদ্দাচ্ছের হোসেনে বিরুদ্ধে মাটি কাটার প্রকল্পের হতদরিদ্র শ্রমিকদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। ২৪ আগস্ট ওই প্রকল্পের ছয়জন ভুক্তভোগী শ্রমিক উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা জয়া মারিয়া পেরেরার কাছে এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

ওই প্রকল্পের তালিকায় নাম থাকা ছয়জন ভুক্তভোগী শ্রমিক উপজেলার শ্রীমন্তপুর ইউনিয়নের ভাতরন্ড গ্রামের মৃত সেকেন্দার ছেলে মিজানুর রহমান, মৃত জব্বার হোসেনের ছেলে আব্দুর রহমান, মৃত আকবর আলির ছেলে আল মামুন,মৃত লবির আলির ছেলে রবিউল হোসেন, মৃত ফয়জুল আলির ছেলে আমিনুল ও মৃত মোসলেম আলির ছেলে লুৎফর হোসেন এই অভিযোগ দেন। ইউপি চেয়ারম্যান জানান, ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরের কর্মসৃজন কর্মসূচির আওতায় ভাতরন্ড গ্রামে মাটি কাটার কাজ করছিলেন হতদরিদ্র শ্রমিকেরা। জানা মতে এটা ইউপি সদস্য মোদ্দাছের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাছে দেওয়া লিখিত অভিযোগ থেকে জানা গেছে, গত ২০১৭-২০১৮ অর্থ বছরে

বছরের এপ্রিল-মে মাস ভাতরন্ড গ্রামে ৪০ দিনের কমর্সূচিতে মাটি কাটার কাজে অংশ নেন ৩৭ জন শ্রমিক। তাঁরা সপ্তাহে পাঁচ দিন করে কাজ করেন। প্রতিদিন প্রত্যেক শ্রমিক ২০০ টাকা করে ৪০ দিনে ৮ হাজার টাকা করে মজুরি পাওয়ার কথা, কিন্তু ওই ৩৭ জন শ্রমিকের মধ্যে ৬জন প্রকল্পের টাকা পাননি বলে দাবি করেন।

ইউপি সদস্য মোদ্দাছের হোসেন অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, এজেন্ট ব্যাংকিংয়ে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে আঙুলের ছাপ ছাড়া একজনের টাকা অন্যজন কোনোভাবেই তুলতে পারেন না। এসব তাঁর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র। পাঁচ পাঁচ বার ইউপি সদস্য পদে জয় লাভ করেছি। দীর্ঘ ২৫ বছর সুনামের সহিত কাজ করে যাচ্ছি এটা একটি কুচক্রী মহল সহ্য করতে পারছে না। তাই
তাঁকে হেয়প্রতিপন্ন করতে এসব মিথ্যা অভিযোগ সাজানো হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জয়া মারিয়া পেরেরা জানান, অভিযোগ পেয়েছি এবং তদন্ত কমেটি গঠন করা হয়েছে,। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.