গলাচিপায় জমিজমার বিরোধের জের ধরে সুমন কে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম

গলাচিপায় জমিজমার বিরোধের জের ধরে সুমন কে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম

সংবাদদাতা(গলাচিপা) প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালীর গলাচিপায় জমিজমার বিরোধের জের ধরে সুমন (২৫) নামে এক দিনমজুরকে হত্যার চেষ্টায় কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
শনিবার (৯ সেপ্টেম্বর) দুপুর আনুমানিক ১১:২০ মিনিটের দিকে গলাচিপা উপজেলার আমখোলা ইউনিয়নের কান্ঞন বাড়িয়া গ্রামের বসত বাড়ির দক্ষিণ পাশে গোলবানুর ভোগদখলীয় জমিতে এ ঘটনা ঘটে।আহত সুমন, ওই গ্রামের মোঃ বাহালম হাওলাদার এর ছেলে এবং পেশায় তিনি একজন দিনমজুর।

আহত সুমন এর বাবা( দৈনিক বাংলার শিরোনাম) এর গলাচিপা প্রতিনিধি কে জানান,দীর্ঘদিন ধরে গোলবানুর জমি নিয়ে প্রতিবেশী মোঃ ফোরকান ,কামাল,হাসান,জুয়েল, জামাল,রশিদ, ফরিদ গং এর পরিবারদের সাথে বিরোধ চলে আসছে। গোলবানুর জমি জোরপূর্বক জবরদখল করার চেষ্টা চালায়।জমি জবরদখল করতে প্রায় সময় গোলবানু ও সুমনের ও পরিবারকে বিভিন্ন ভাবে ভয়-ভীতি সহ খুন জখমের হুমকি দেয় সন্ত্রাসী ফোরকান গং।

বিষয়টি নিয়ে গোলবানু গং স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গকে জানালে ফোরকান গং ও তার সহযোগীরা আরো ক্ষিপ্ত হয়ে গোলবানু গংদের লাগানো ধান গাছ উঠাইয়া নষ্ট করে। এসময় গোলবানু সহ সুমন সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে বাধা দিলে গোলবানু গং এর সাথে ফোরকান গং এর বাক-বিতণ্ড হয়।

এক পর্যায়ে ফোরকান, কামাল,হাসান, জুয়েল, ফরিদ জামাল, রশিদ মাতুব্বর সহ প্রায় দশ বারো জন সহযোগী সন্ত্রাসীরা পরিকল্পিতভাবে সুমন কে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা চালায়।এ সময় সুমন ও গোলবানু ডাক চিৎকার শুরু করলে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে গলাচিপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।

অভিযোগ রয়েছে, ফোরকান গংরা”মামলাবাজ, চাঁদাবাজ, ও ভূমিদস্য সন্ত্রাসী।তাদের অত্যাচারে এলাকার সাধারণ মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে আছে।আরো যানা যায়, ফোরকান এলাকায় একজন চিহ্নত ত্রাস।রাষ্ট্রের আইনকানুন তোয়াক্কা করে না।

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা আহত অবস্থায় সুমান কে উদ্ধার করে গলাচিপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। ধারালো অস্ত্রের আঘাতে সুমনের মাথার উপরে মারাত্মক জখম রয়েছে। তবে অবস্থার অবনতি হলে যে কোন সময় তাকে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা যেতে পারে বলে জানিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

অপর ভুক্তভোগী গোলবানু বেগম বলেন,অভিযুক্ত ফোরকান গং এর সঙ্গে জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে আমাদের বিরোধ চলছে।পূর্বের জের ধরেই তারা জমির রোপণকৃত আমন ধানের সমস্ত বীজ উঠিয়ে নষ্ট করে ফেলে।এতে প্রায় বিশ হাজার টাকার ফসলের ক্ষয়ক্ষতি করে। আমার নাতি সুমন সহ আমরা বাঁধা দিলে নাতি সুমনকে হত্যার উদ্দেশ্য পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে মাথায় লক্ষ্য করে বাংলা দা দিয়ে কোপ দেয় এবং মাটিতে লুটিয়ে পরে শরীরের বিভিন্ন অংশে মারাত্মক রক্তাক্ত জখম হয়। আমি তাকে বাঁচানোর চেষ্টা করার জন্য আগাইয়া আসিলে আমাকেও তারা এলোপাতাড়ি মারধর করে জখম করা হয়। আমি এহেন মর্মান্তিক ঘটনায় আইনের সহায়তা চেয়ে সুমনের বাবা মোঃ বাহালম হাওলাদার থানার লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন।

তবে এ ঘটনায় অভিযুক্ত ফোরকান এর ব্যবহিত মোবাইল নম্বরে একাধিকবার ফোন করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

এ বিষয় গলাচিপা থানায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেন, এবং এলাকা বাসীর দাবী অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যাবস্থা নেওয়া হোক।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.