ঢাকা ০৭:১৫ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
কাঙ্ক্ষিত মানের জনশক্তি ছাড়া বিপ্লব সাধিত হয় না- মোহাম্মদ আবদুল জব্বার বন্দরের ভয়ঙ্কর ডাকাত সর্দার মামুন গ্রেফতার বাউফলে প্রাণিসম্পদ সপ্তাহ উদ্বোধন করেন আ স ম ফিরোজ বাউফলে মাদক ব্যবসায়ী নাঈম কে ৯৯ পিস ইয়াবা সহ আটক করেছেন থানা পুলিশ  কাজিম উদ্দিন প্রধানের আকস্মিক মৃত্যুতে ফারুক হোসেনের গভীর শোক প্রকাশ বন্দর উপজেলা নির্বাচনে পিতা-পুত্রসহ ৫ চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র জমা ফিলিস্তিনিদের পাশে বিশ্বের সকল মুসলিমদের এগিয়ে আসতে হবে- ডাঃ সৈয়দ আব্দুল্লাহ মোঃ তাহের বাউফল কাশিপুরের অদম্য ১০ ব্যাচের বন্ধুমহলের ইফতার ও দোয়া অনুষ্ঠিত দুমকিতে ১ হাজার অসহায় পরিবারের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরন অয়ন ওসমানের নেতৃত্বে নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রলীগের ইফতার বিতরন

সিদ্ধিরগঞ্জে হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় গৃহবধূর মৃত্যুর অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০৬:১৩:৪১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ ডিসেম্বর ২০২৩ ৬২ বার পড়া হয়েছে

গৃহবধূর মৃত্যুর অভিযোগ

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকায় প্রো-অ্যাকটিভ হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় ফারজানা আক্তার (৪০) নামের এক গৃহবধূর মৃত্যুর অভিযোগ তুলেছেন স্বজনেরা।

শনিবার (২৩ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে ওই নারী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

মৃত নারীর স্বজনরা জানিয়েছেন, আজ ভোর সাড়ে পাঁচটায় ওই গৃহবধূর বুকে ব্যাথা উঠলে তারা তাকে প্রো-অ্যাকটিভ হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানকার ডাক্তাররা হার্ট ফেল করেছে জানিয়ে তাৎক্ষণিক দুটি ইনজেকশন দেয় তাকে। পরে অবস্থার আরও বেগতিক দেখলে এর কিছুক্ষণ পর রোগীকে আইসিইউতে নিয়ে গিয়ে আরও ১০টি ইনজেকশন দেয়। একপর্যায়ে ডাক্তাররা যখন বুঝতে পারেন রোগীর মৃত্যু হয়েছে তখন তারাহুরো করে রোগীকে ঢাকায় নিয়ে যেতে পরামর্শ দেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। পরে রোগীর সঙ্গে থাকা স্বজনরা দেখতে পান সে কোনো শ্বাস-প্রশ্বাস নিচ্ছে না। তখন তারা বুঝতে পারেন তার মৃত্যু হয়েছে।

মৃত ওই নারীর স্বামীর নাম রুহুল আমীন। তাদের সংসারে দুটি মেয়ে সন্তান রয়েছে।

এদিকে এই মৃত্যুকে হত্যা দাবি করে ওই গৃহবধুর ভাসুরের ছেলে আনু খান বলেন, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জিজ্ঞেস করেছিলাম কি কি ইনজেকশন দেওয়া হয়েছিল? কিন্তু তারা কোনো উত্তর দেয়নি। এরা এর পূর্বেও এমন অনেকের সঙ্গে এমন ঘটনা ঘটিয়েছে। এই হাসপাতালের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত।

ঘটনার সত্যতা জানতে চাইলে প্রো-অ্যাকটিভ মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) মো. রাশিদুল ইসলাম জানান, ভুল চিকিৎসায় ওই গৃহবধুর মৃত্যু হয়েছে তা ভুল কথা। কার্ডিয়াক সমস্যা নিয়ে ওই রোগী আজ ভোরে আমাদের হাসপাতালে ভর্তি হোন। পরবর্তীতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে মারা যান। তাকে বাঁচাতে আমরা চেষ্টা কোনো ত্রুটি রাখে নি। রাগের বর্শবর্তী হয়ে হয়তো রোগীর স্বজনরা এখন এই অভিযোগ তুলছেন।

হাসপাতালে বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে কিনা জানতে চাইলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আবু বকর সিদ্দিক জানান, আমাদের কাছে অভিযোগ দেওয়া হলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে। আমরা মৃত নারীর স্বজনদের সাথে কথা বলেছি মরদেহ ময়নাতদন্ত করার জন্যে। কিন্তু তারা মরদেহ ময়নাতদন্ত করবে না বলে লাশ নিয়ে গেছেন।

নারায়ণগঞ্জ জেলা সিভিল সার্জন ডা: এ এফ এম মুশিউর রহমান বলেন, ভুল চিকিৎসায় মৃত্যু হলে থানা অভিযোগ দিতে হবে এবং আমাদের বরাবর একটি লিখিত চিঠি পাঠালে আমরা সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নিবো।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

সিদ্ধিরগঞ্জে হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় গৃহবধূর মৃত্যুর অভিযোগ

আপডেট সময় : ০৬:১৩:৪১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ ডিসেম্বর ২০২৩

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকায় প্রো-অ্যাকটিভ হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় ফারজানা আক্তার (৪০) নামের এক গৃহবধূর মৃত্যুর অভিযোগ তুলেছেন স্বজনেরা।

শনিবার (২৩ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে ওই নারী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

মৃত নারীর স্বজনরা জানিয়েছেন, আজ ভোর সাড়ে পাঁচটায় ওই গৃহবধূর বুকে ব্যাথা উঠলে তারা তাকে প্রো-অ্যাকটিভ হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানকার ডাক্তাররা হার্ট ফেল করেছে জানিয়ে তাৎক্ষণিক দুটি ইনজেকশন দেয় তাকে। পরে অবস্থার আরও বেগতিক দেখলে এর কিছুক্ষণ পর রোগীকে আইসিইউতে নিয়ে গিয়ে আরও ১০টি ইনজেকশন দেয়। একপর্যায়ে ডাক্তাররা যখন বুঝতে পারেন রোগীর মৃত্যু হয়েছে তখন তারাহুরো করে রোগীকে ঢাকায় নিয়ে যেতে পরামর্শ দেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। পরে রোগীর সঙ্গে থাকা স্বজনরা দেখতে পান সে কোনো শ্বাস-প্রশ্বাস নিচ্ছে না। তখন তারা বুঝতে পারেন তার মৃত্যু হয়েছে।

মৃত ওই নারীর স্বামীর নাম রুহুল আমীন। তাদের সংসারে দুটি মেয়ে সন্তান রয়েছে।

এদিকে এই মৃত্যুকে হত্যা দাবি করে ওই গৃহবধুর ভাসুরের ছেলে আনু খান বলেন, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জিজ্ঞেস করেছিলাম কি কি ইনজেকশন দেওয়া হয়েছিল? কিন্তু তারা কোনো উত্তর দেয়নি। এরা এর পূর্বেও এমন অনেকের সঙ্গে এমন ঘটনা ঘটিয়েছে। এই হাসপাতালের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত।

ঘটনার সত্যতা জানতে চাইলে প্রো-অ্যাকটিভ মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) মো. রাশিদুল ইসলাম জানান, ভুল চিকিৎসায় ওই গৃহবধুর মৃত্যু হয়েছে তা ভুল কথা। কার্ডিয়াক সমস্যা নিয়ে ওই রোগী আজ ভোরে আমাদের হাসপাতালে ভর্তি হোন। পরবর্তীতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে মারা যান। তাকে বাঁচাতে আমরা চেষ্টা কোনো ত্রুটি রাখে নি। রাগের বর্শবর্তী হয়ে হয়তো রোগীর স্বজনরা এখন এই অভিযোগ তুলছেন।

হাসপাতালে বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে কিনা জানতে চাইলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আবু বকর সিদ্দিক জানান, আমাদের কাছে অভিযোগ দেওয়া হলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে। আমরা মৃত নারীর স্বজনদের সাথে কথা বলেছি মরদেহ ময়নাতদন্ত করার জন্যে। কিন্তু তারা মরদেহ ময়নাতদন্ত করবে না বলে লাশ নিয়ে গেছেন।

নারায়ণগঞ্জ জেলা সিভিল সার্জন ডা: এ এফ এম মুশিউর রহমান বলেন, ভুল চিকিৎসায় মৃত্যু হলে থানা অভিযোগ দিতে হবে এবং আমাদের বরাবর একটি লিখিত চিঠি পাঠালে আমরা সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নিবো।