চর এলাহীতে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের একাংশের দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত

মোঃ মাসুদ রানা, নোয়াখালী প্রতিনিধিঃনোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চর এলাহী ইউনিয়নে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের একাংশের উদ্যোগে দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

১৯ এপ্রিল মঙ্গলবার চর এলাহী উচ্চ বিদ্যালয়ের হলরুমে এ দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি (মিজানুর রহমান বাদল সমর্থক) মহরম আলীর সভাপতিত্বে, সাবেক ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক আবুল কালামের সঞ্চালনায় দোয়া ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি (একাংশ) বীর মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদল।

দোয়া ও ইফতার মাহফিলে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, রামপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সিরাজিস সালেকিন রিমন, স্বাধীনতা ব্যাংকার্স পরিষদ সদস্য ফখরুল ইসলাম রাহাত, চর এলাহী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক, উপজেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক (একাংশ) শাহ ফরহাদ লিংকন, সরকারি মুজিব কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি (একাংশ) রাহীম, সাধারণ সম্পাদক মোবারক হোসেন রিয়াদ প্রমুখ।

দোয়া ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে খিজির হায়াত খান বলেন, জাতীয় নির্বাচন ঘনিয়ে আসছে তাই উপজেলা আওয়ামীলীগকে সুসংগঠিত করতে হবে। পাশাপাশি ইউনিয়ন কমিটি গুলো ও ঢেলে সাজাতে হবে কাউন্সিলের মাধ্যমে। অথচ সেটা না করে একজন তার ইচ্ছেমতো যখন তখন কমিটি পরিবর্তন করছে। তিনি দলীয় গঠনতন্ত্রের তোয়াক্কা না করে কমিটি দিলেও কোন লাভ হবে না, নেতাকর্মীরা এসব কমিটি মানে না। খিজির হায়াত বলেন, আমারো বয়স হয়েছে, আমি নিজে ও আর সভাপতির দায়িত্ব নিবো না, নতুন নেতৃত্ব সৃষ্টি করতে হবে। তবে কাউন্সিলের আগ পর্যন্ত আমি আমার দায়িত্ব পালন করবো।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদল বলেন, রমজান মাস সিয়াম সাধনার মাস, এ মাসেও থেমে নেই অপ-রাজনীতির হোতারা। তারা তাদের অপকর্ম করেই যাচ্ছে। তিনি বলেন, গত পরশুদিন আমি আমার ফেসবুকে ডুকে দেখি তিনি (কাদের মির্জা) আমাদের রামপুরের চেয়ারম্যান সিরাজিস সালেকিন রিমনকে উঠিয়ে নেওয়ার হুমকি দিচ্ছেন।

উপস্থিত জনগণের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, এরিও আন্নেরা হুইনছেন নি আঁরে ও নাকি হেতেনে হামালি হালাইছে, কাদের মির্জাকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, আরে হামাইলবার মালিক তো আল্লাহ, আমনে কেন্নে আঁরে হামাইলবেন। আঁর বাপ একজন মুক্তিযোদ্ধা আছিলো, আঁর বাপ এই দলের লাই ১৯৭৫ সালে জীবন দিছে, প্রয়োজন অইলে আঁঈ ও জীবন দিমু তবু এই অপ-রাজনীতির হোতার লগে আর রাজনীতি কইত্তান্নো।

যমুনা টিভির সাংবাদিক মুনতাসীম বিল্লাহ সবুজকে উদ্দেশ্য করে বাদল বলেন, আপনাকে খুব ভালো জানতাম, কিন্তু আপনিও শেষ পর্যন্ত টাকার কাছে বিক্রি হয়ে গেলেন! আপনি সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যার অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে আজ থেকে ৪ বছর আগের সাক্ষাৎকার ও ডুকিয়ে দিয়েছেন, সেটার প্রমাণ ও আছে আমাদের হাতে, আমরা অচিরেই সব উন্মোচন করবো। সেদিন বসুরহাট থেকে কারা এসে আমার বাড়িতে হামলা করেছে তা এদেশের জনগণ দেখেছে।

আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে উদ্দেশ্য করে বাদল বলেন, আমরা আপনাকে নেতা মানি, আপনি ঈদের পরে এসে সবার কথাগুলো শুনুন, দেখুন কোম্পানীগঞ্জের নেতাকর্মীরা কিভাবে দিনাতিপাত করছে। কোম্পানীগঞ্জের টি আর কাবিখা কে লুটেপুটে খাচ্ছে। আওয়ামীলীগ কি আমরা করি নি কোম্পানীগঞ্জে? আমরা এখানে একনায়কতন্ত্র দেখতে চাই না। আপনি আসুন, বসুন নেতাকর্মীদের নিয়ে, আমরা এ অপ-রাজনীতির হোতার সাথে রাজনীতি করবোনা।

উল্লেখ্য এর তিনদিন আগে কাদের মির্জা সমর্থিত ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ ও একই স্থানে দোয়া ও ইফতার মাহফিল আয়োজন করে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *