ছিড়ে গেছে বেড়িবাঁধ, ভেঙ্গে যাচ্ছে চর এলাহী

ছিড়ে গেছে বেড়িবাঁধ, ভেঙ্গে যাচ্ছে চর এলাহী


বাংলার শিরোনামঃ

নোয়াখালীর কোম্পানিগঞ্জ উপজেলার ৮নং চর এলাহী ইউনিয়নের বেশকিছু গ্রাম প্রতিনিয়ত জোয়ারের পানিতে প্লাবিত হচ্ছে, বেড়িবাঁধ ছিড়ে যাওয়ায় প্রতিদিন জোয়ারে প্লাবিত হয় চর লেংটা, চর সৈকত ,ক্লোজার ঘাট সহ বেশকিছু গ্রাম।

সরেজমিনে চর এলাহী ইউনিয়ন ঘুরে এসে দেখা যায়, ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের মধ্যদিয়ে যাওয়া একমাত্র বেড়িবাঁধটি জোয়ারের তোড়ে ও ভাঙ্গনের কবলে পড়ে ছিড়ে গেছে।

স্থানীয়রা জানান এক বছরের মাথায় এই বেড়িবাঁধটি ও গিলে খেয়েছে রাক্ষসী বামনীয়া নদী। জানা যায় নোয়াখালী খাল খনন ও নদীতীর সংরক্ষণের অংশ হিসেবে সরকার এই বেড়িবাঁধটি বেঁধেছিল।

ক্লোজার ঘাটের দোকানদার শেখ আহম্মদ মিয়া (৫৫) আক্ষেপ করে বলেন দীর্ঘ বিশ/পঁচিশ বছর যাবত নদী ভাঙন অব্যাহত থাকলেও কোনো সরকার-ই আজ পর্যন্ত নদী ভাঙন প্রতিরোধে স্থায়ী কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি, যে কারণে প্রতিদিন মানুষ জোয়ারের পানিতে ভাসে আর ডুবে, পাশাপাশি নদীর ভাঙ্গনে পড়ে হারায় বাড়িঘর।

নদী ভাঙনে ঘরবাড়ি হারানো রহমতুল্লাহ (৩৫) বলেন আমাদের এখানকার মানুষের ভোটে আমাদের নেতারা জাতীয় নেতা হলেও আমাদের ভাগ্যের কোনো পরিবর্তন ঘটে না। তারা নদী ভাঙন বন্ধ করার জন্য কোনো পদক্ষেপ ই নেন না। যার কারণে সবকিছু হারিয়ে আজ আমরা পথে বসে গেছি।

ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক বলেন, প্রতিদিন যে হারে আমার ইউনিয়নের ভূমি নদী ভাঙনে বিলীন হচ্ছে এভাবে চলতে থাকলে আগামী দুই বছরের মধ্যে হয়তো এই ইউনিয়ন পরিষদ ভবন ও নদী গর্বে হারিয়ে যাবে, বাংলাদেশ থেকে হারিয়ে যাবে চর এলাহী নামক এই ইউনিয়নটি। তাই তিনি এই আসনের সাংসদ সদস্য বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। এবং নদী ভাঙন স্থায়ীভাবে বন্ধ করার জন্য ক্রসড্যাম ও নদীতীরে ব্লক বসানোর দাবী জানান।


শেয়ার করুন