জনগণই আমাকে কাউন্সিলর হিসেবে দেখতে চায়- খাজা মামুন 

ইউসুফ আলী প্রধানঃ ১০নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী খাজা মামুন দৈনিক বাংলার চোখ ‘কে বলেন,

আমরা অনেক দিন যাবত মানুষের দুয়ারে-দুয়ারে ছিলাম এখনও আছি। ইনশাল্লাহ সব সময় থাকার চেষ্টা করি এবং করবো।
আমি খুবই সাধারণ একজন মানুষ সবাই কে বিশ্বাস করি এটাই আমার সাধারণ পলিসি। আমি সারা জীবন এই নীতি বা পলিসি নিয়ে বাঁচতে চাই। ছোট বড় সবাই আমার আপনজন। আমার ভাই।

১০নং ওয়াডের জনগণই আমাকে পছন্দ করেছে। তাদের আগ্রহের কেন্দ্র বিন্দু আমি, আমি নিজেকে জনগণের খাদেম মনে করি।আমি একজন স্বেচ্ছাসেবক। সেজন্য জনগণরাই আমাকে কাউন্সিলর পদ প্রাথী হিসেবে আসন্ন
নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নিবাচনে কাউন্সিলর প্রাথী হিসেবে দেখতে চায়।

নির্বাচন প্রসঙ্গে ১০নং ওয়াডের কাউন্সিলর প্রার্থী খাজা মামুন (পিতাঃ আনোয়ার হোসেন , মাতাঃ মৃত আঞ্জুমানআরা বেগম আরও
বলেন,আমি ঈমানী দায়িত্ব মনে করি মানুষের সেবা করাকে। মানুষের সেবা করলে আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভ করা যায়।
১০নং ওয়ার্ডকে একটি মডেল ও আদশ্ ওয়ার্ড হিসেবে ওয়াডবাসীর সম্মিলিত প্রচেষ্টায় গড়ে তুলব। সমস্ত উন্নয়নমুলক কাজে জনগণের মতামত নিয়ে কাজ করব।
১০নং ওয়াডের ময়লা অপসারণ, পানি নিষ্কাশন, জলাবদ্ধতা, ড্রেনেজ ব্যবস্থা, লাইটিং ব্যবস্থা, বিশুদ্ধ পানির অভাব, মাদক নিয়ে ব্যাপক কাজ করব।
তিনি বলেন, আমি মাদক নির্মূলে কঠোর থেকে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করব। আমার এলাকায় কোন মাদক ব্যবসায়ী এবং মাদকসেবীর স্থান হবেনা। আমার ওয়ার্ডবাসী যেন শান্তিপ্রিয় ভাবে বসবাস করতে পারে আমি সেই লক্ষ্যে সবসময় কাজ করব।
মানুষ বেঁচে থাকে কর্মে। আমি জনগণের কল্যাণে নিবেদিত প্রাণ হয়ে তাদের কল্যাণে নিয়োজিত থেকে উন্নয়ন কাজ করব।

করণা মহামারী সময় কালে কাউন্সিলর প্রার্থী খাজা মামুন হোসেন অসহায় গরীব দুস্থ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন।
এছাড়াও ঈদ উৎসবে তিনি অসহায় গরীব দুস্থ মানুষের খোজ খবর নিয়েছেন। আমি মানুষের পাশে থাকতে চাই তাদের ভালোবাসা পেতে চাই। তাদের সেবা করে আমার জীবন কাটিয়ে দিতে চাই।

আমার প্রাণপ্রিয় ১০ নং ওয়ার্ডবাসী যদি আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করে তাহলে আমি ১০নং ওয়ার্ড কে একটি আদশ্ ও মডেল ওয়াড হিসেবে উপহার দিব ইনশাআল্লাহ ।

উল্লেখ, শীতলক্ষ্যা নদী বেষ্টিত একটি গুরুত্বপূর্ণ ওয়াড ১০নং ওয়ার্ড। এই ওয়ার্ডে চিত্তরঞ্জন খেলার মাঠ সহ ১৭ টি মসজিদ,,মাদরাসা, সিটি কর্পোরেশন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও বেসরকারী হাসপাতাল রয়েছে।
এই ওয়ার্ডের ভোটার সংখ্যা প্রায় ২০ হাজারেরও বেশি।

নির্বাচন কমিশন ঘোষণা করেছে আগামী ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত হবে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচন। এমন ঘোষনায় নড়েচড়ে বসেছে সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থীরা। তাই ১০নং ওয়াডে এখন বইছে নির্বাচনী হাওয়া। আর তাই নতুন প্রার্থীরা প্রচারণায় ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন।
১০নং ওয়াডের মোড়ে মোড়ে অলিতে গলিতে প্রার্থীদের ছবি সম্বলিত পোস্টার, ব্যানার, ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে। এমনকি প্রার্থীরা জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও নিজের পক্ষে প্রচারণা চালাচ্ছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *