স্বপ্নের পদ্মা সেতু

ধামগড় ইউপি ৭নং ওয়ার্ড ঘুড়ি প্রতীক জনসমর্থনে এগিয়ে- আইয়ুব মেম্বার

বন্দর প্রতিনিধিঃ সারা দেশের ন্যায় আগামী ১১ই নভেম্বর দ্বিতীয় ধাপে ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ ধাপে দেশের ৮৪৮টি ইউনিয়ন পরিষদের একযোগে ভোটগ্রহণ হবে। এর মধ্যে ২০টিতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট হবে।

তাই বন্দর উপজেলা ধামগড় ইউনিয়ন ৭নং ওয়ার্ড থেকে ঘুড়ি প্রতিক নিয়ে হাফেজ আইয়ুব মেম্বার জনসমর্থনে এগিয়ে।এবারো সম্ভাব্য মেম্বার পদে নির্বাচন করছেন ২জন হেভিওয়েট প্রার্থী। তারা দুইজনই বর্তমান ক্ষমতাসীন দলের রাজনীতির সাথে জড়িত। দুইজন প্রার্থীর মধ্যে রয়েছেন বর্তমান মেম্বার হাফেজ আইয়ুব ও সাবেক মেম্বার শাহআলম। তবে দুই জন হেভিওয়েট প্রার্থী হলে ও হাফেজ আইয়ুব মেম্বার জনপ্রিয়তার শীর্ষে। আইয়ুব মেম্বারের ” মা” ছিলেন একজন তুখোর আওয়ামিলীগ নেত্রী। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে অনুপ্রানীত হয়ে বন্দর উপজেলা মহিলা আওয়ামিলীগের নেতৃত্ব দিয়ে গেছেন। হাফেজ আইয়ুব মেম্বার সেই শিশুকাল থেকেই মায়ের আচল ধরে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে গড়ে উঠেন। জয় করে নেন বন্দর উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দের মন। বিশেষ করে বন্দর উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এম এ রশিদ এর সহযোগী থেকে একজন সফল ব্যাবসায়ীক পার্টনার। গত নির্বাচনে হাফেজ আইয়ুব মেম্বার বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়ে এলাকার রাস্তা-ঘাট, স্কুল, মসজিদ, মাদ্রাসা,কালভার্ট থেকে শুরু করে অসংখ্য উন্নয়নমূলক কাজ করেন। তাছাড়া এলাকার লোকজনের নিকট আইয়ুব মেম্বার একজন সাদা মনের মানুষ হিসেবে পরিচিত। গত পাঁচ বছর এলাকার উন্নয়নের পাশাপাশি অত্যন্ত সফলতার সহিত দায়িত্ব পালন করেন। রাত কিংবা দিন নয় জনগন যখন যেকোন প্রয়োজনে আইয়ুব মেম্বারকে ডেকেছেন তখন-ই সারা দিয়েছেন। তাই এবারের নির্বাচনে আইয়ুব মেম্বারের দাবী জনগন যেন আবারো দ্বিতীয়বারের মতো ঘুড়ি মার্কায় ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেন। তবেই অসমাপ্ত কাজের সমাপ্তি করবেন। কারন বিগত দিনগুলোতে করোনায় দুইটি বছর সরকারী উন্নয়ন থেকে বঞ্চিত এলাকার জনগন। তারপরও বসে থাকেনি ৭নং ওয়ার্ডবাসীর নিকট পরিচিত সরলমনা আইয়ুব মেম্বার। কখনো ব্যাক্তিগত অর্থ ব্যায় করে গরীব অসহায় নিরীহ মানুষের মুখে হাসি ফুটিয়েছেন। আবার কখনো রাতের আধারে ক্ষুধার্তদের মাঝে চাল,ডাল আর পরিধেয় বস্ত্র পৌছে দিয়েছেন। এছাড়া রয়েছে প্রশাসনের বিভিন্ন দফতরের সাথে যোগাযোগ ও সু-সম্পর্ক । যখন যে কোন সমস্য অনায়াসে সমাধান করতে পারেন। তাইতো এলাকার নিরীহ জনসাধারনের দাবী আইয়ুব মেম্বার যেন ঘুড়ি মার্কা নিয়ে পুনরায় মেম্বার পদে নির্বাচিত হন। আর তবেই এলাকার জনগন শান্তিতে বসবাস করতে পারবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.