বহুরুপি প্রতারক মিজানের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ 

স্টাফ রিপোর্টারঃ বিয়ে করাই যার ব্যাবসা এমন এক বহুরূপী প্রতারক মিজানের বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জ সদর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের  করেছেন তার দিত্বীয়  স্ত্রী সুলতান আক্তার(২৬) । 
অভিযোগ সূত্রে  জানা গেছে পটুয়াখালী জেলা সদর উপজেলার চান্দুখালী এলাকার  রফিকুল ইসলাম মালেকের ছেলে মিজানুর রহমান(৪২) নারায়ণগঞ্জ জেলা সদর উপজেলার হাজীগঞ্জ এম সার্কাস এলাকার এরশাদ হোসেনের কন্য সুলতানা আক্তার এর সাথে ০৩, ০৮,২০২১ তারিখে মুসলিম রীতি অনুযায়ী বিবাহ সম্পর্ন হয়। নিকাহনামা বালাম নং ৪/১ক্রমিক নং ৪০ পৃষ্ঠা নং ৫৭। বিবাহের পর হাজীগঞ্জ এম সার্কাস তোতা খন্দকার ভাড়া বাড়িতে আমরা স্বামী স্ত্রী হিসাবে ঘর সংসার করে আসর্ছিলাম  কিছুদিন ঘর সংসার করার পর পালিয়ে যায় প্রতারক মিজানুর রহমান।
উল্লেখ্য যে বহুরুপী প্রতারক মিজানুর রহমান পূর্বে বিবাহিত ছিল তা আমার কাছে সম্পূর্ণভাবে গোপন করছেন, পরবর্তীতে আমি তার বিবাহের কথা জানলে তিনি অকপটে  স্বীকার করেন। এরই মধ্যে নারী লোভী বহুরুপী প্রতারক মিজানুর রহমান বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে আমার কাছে থেকে নগদ ১,০০,০০০ এক লক্ষ টাকা  দুইভরি স্বর্ণরে গহনা ও স্মার্ট ফোন সহ গুরুত্বপূর্ণ কিছু ডকুমেন্টস নিয়ে পালিয়ে যায়।
অভিযোগকারী আরো বলেন বিবাহর মাস থেকেই যৌতুকের জন্য  আমার উপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করতো  প্রতিদিনই মাঝে মাঝে মেরে ফেলারও হুমকি প্রদান করতো আরো বলতো তোর কোন বাপ আছে দেখমুনি তোরে ছাইরা দিলে কে কি করবো তা আমি দেইখা লমু তুই পারলে কিছু করিস এসব বলেই নির্যাতনের মাত্রা বাড়িয়ে দিতো নারী লোভী  বহুরুপী প্রতারক মিজানুর রহমান।এছাড়া মোবাইল ফোনে আমাকে হুমকি প্রদান করে যার নং 01763-533080
এ বিষয়ে জানতে চাইলে এস আই কামরুজ্জামান বলেন এসব প্রতারক গুলো খুবই চতুর এরা বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন বেশবুশা লাগিয়ে  নাম পরিবর্তন করে  বসবাস করে। তবে আমাদেরই সর্তক থাকতে হবে এসব প্রতারকদের কাছে থেকে।   তবে অপরাধী যেই হউক তাকে ধরা পড়তে হবেই ।
শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *