বাউফলে অটোচালক কতৃক সহকারি শিক্ষক ও শিক্ষিকাকে মারধরের ঘটনায় মামলা

সংবাদদাতা,হাসান,বাউফল কাশিপুরঃপটুয়াখালী জেলার বাউফল উপজেলার আদাবাড়িয়ার মিলঘরে মোসাঃ আসমা বেগম সহকারী শিক্ষিকা বালিয়া চাঁদপাল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ফাহাদ হোসাইন সহকারী শিক্ষক পশ্চিম মাধবপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এই দুজন শিক্ষককে অটোচালক হাসান ও তার বাবা মাসুম ও তার কাকা মিলে মারধর করে এমন ঘটনা ঘটে ২০ জুন সোমবার বিকাল ৪ঃ৩০ মিনিটের সময় ।

আসমা বেগম বালিয়া থেকে অটো নিয়ে আসে মিলঘর আসলে মিলঘরের অটো চালক হাসান বাধা দেয় এবং বলে এখন আমাদের অটোতে যেতে হবে এ নিয়ে কথা কাটা কাটি হয় এক পর্যায়ে হাসান আসমা বেগমকে এলোপাতাড়ি কিল ঘুসি মারে তা দেখে ফাহাদ ও কামাল হোসেন সহকারী শিক্ষক তারা এসে হাসানকে বলে একজন শিক্ষকের গায় হাত দিস কেন এনিয়ে কথা কাটাকাটি হলে হাসানের বাবা মাসুম ও কাকা নুর হোসেন আরো সাত আটজন সন্ত্রাসী এসে ফাহাদ হোসাইন স্যারকে এলোপাতাড়ি কিল-ঘুষি মারতে থাকে আর বলে তোগ মতন প্রাইমারি মাস্টার মারলে বাল হয়। আসমা ও ফাহাদ হোসেন দুজনেই বাউফল হসপিটালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি আছে।এ হেন সন্ত্রাসী কার্যকলাপের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন সহকারি শিক্ষক আসমা ও ফাহাদ হোসেনের পরিবারবর্গ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *