বাউফলে নির্বাচনে এজেন্টদের ভোটকক্ষের বারান্দায় বসানোর দাবি

মোঃনুরুজ্জামান মৃধা,পটুয়াখালী প্রতিনিধি:
বাউফলের নাজিরপুর-তাঁতেরকাঠি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) উপ-নির্বাচনে সব প্রার্থীদের এজেন্টদের ভোটকক্ষের বাহিরে বারান্দায় বসানোর দাবি করেছেন আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী (চশমা) এস.এম মহসিন। শনিবার বেলা ১২টার দিকে বাউফল প্রেস ক্লাবে এক সাংবাদিক সম্মেলনে এমন দাবি তুলেন ওই প্রার্থী।
ওই সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি বলেন, ইভিএমে এজেন্টদের প্রয়োজনীয়তা নাই বলেই চলে। সুষ্ঠু নির্বাচনের লক্ষে সব প্রার্থীদের এজেন্টদের ভোটকক্ষের বাহিরে বারান্দায় বসানোর জন্য আমি রিটানিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা বরাবরে আবেদন করেছি। এদিকে, তাঁর এমন দাবি নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।
স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) নির্বাচন আইন ২০১০ এর (২৫) এ বলা হয়েছে, প্রতিদ্ব›দ্বী প্রার্থী প্রতিটি ভোটকক্ষের জন্য অনধিক একজন পোলিং এজেন্ট নিয়োগ দিতে পারিবেন। ওই পোলিং এজেন্ট স্থানে অবস্থান করিয়া বিধি অনুযায়ী স্বীয় দায়িত্ব পালন করিবেন এবং ভোটগ্রহণ শেষ না হওয়া পর্যণÍ সহকারি প্রিজাইডিং অফিসারের অনুমতি ব্যতিরেকে ভোটক্ষ এবং প্রিজাইডিং অফিসারের অনুমতি ব্যতিরেকে ভোটকেন্দ্র ত্যাগ করিতে পারিবেন না।’
এক্ষেত্রে এজেন্টদের ভোটকক্ষের বাহিরে বারান্দায় বসানোর দাবি অযৌক্তিক বলে মনে করছেন নির্বাচন সংশ্লিষ্ট ও প্রতিন্দ›দ্বী প্রার্থীরা।
এছাড়াও ওই সাংবাদিক সম্মেলনে চশমা প্রতীকের প্রার্থী এস.এম মহসিন তার কর্মীদের উপর হামলা ও প্রচারণায় বাঁধার অভিযোগ তুলেন। এসময় তিনি সুষ্ঠু অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য সাংবাদিকদের সহযোগীতা কামনা করেন।
এদিকে একই সাংবাদিক সম্মেলনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী (মটরসাইকেল) মো. সাইফুল ইসলাম উপস্থিত থাকলেও আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী এস.এম মহসিনকে সমর্থন দেননি বলে সাংবাদিকদের জানান তিনি।
এবিষয়ে নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী ও সাবেক চেয়ারম্যান মো. ইব্রাহিম ফারুক বলেন,‘ নাজিরপুরে নৌকার গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। জনবিচ্ছন্ন হয়ে পড়েছেন আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী (মহসিন)। যার কারনে তিনি হতাশাগ্রস্থ হয়ে আইন বহির্ভূত দাবি তুলছেন।
এবিষয়ে রিটাটিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাচন অফিসার মো. তারিকুল ইসলাম বলেন,‘ আইন অনুযায়ী পোলিং এজেন্টদের ভোটকক্ষের ভিতরে নির্ধারিত স্থানে বসাতে হবে। বাহিরে বা বারান্দায় বসানোর কোন সুযোগ নেই।
তিনি আরও বলেন,‘ আগামী ৬ই সেপ্টেম্বর নাজিরপুর-তাঁতেরকাঠি ইউপি উপনির্বাচন শতভাগ সুষ্ঠু অবাধ ও নিরপেক্ষ হবে। এজন্য নির্বাচন অফিস সকল ধরনের প্রস্তুতি নিচ্ছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.