স্বপ্নের পদ্মা সেতু

বাউফলে পুলিশের গায়ে থাপ্পড় মারে যুবলীগ নেতা শাহিন বাবুর্চি

 বাউফল প্রতিনিধি::পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার কালাইয়া নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির এক পুলিশ সদস্যকে কালাইয়া ইউনিয়ন যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মাসুম বিল্লাহ শাহিন প্রকাশ্যে থাপ্পর মেরেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
গতকাল শুক্রবার (৩১ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে কালাইয়া বাজার এলাকায় ওই ঘটনা ঘটেছে। ওই যুবলীগ নেতা শাহিন বাবুর্চি নামে পরিচিত। তিনি স্থানীয় এমপি আসম ফিরোজের ভাতিজি জামাই।
স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে,গতকাল সকালে সাদা পোশাকে কালাইয়া বাজারে যান পুলিশ সদস্য মো. হাফিজুর রহমান। সকাল সাড়ে দশটার দিকে ওই বাজারের কালাইয়া রব্বানিয়া ফাজিল মাদরাসার পশ্চিম পাশের সড়ক দিয়ে বেপরোয়াভাবে মোটরসাইকেল চালিয়ে যাচ্ছিলেন শাহিন বাবুর্চি। ওই সময় পুলিশ সদস্য হাফিজুর এর প্রতিবাদ করলে শাহিন মোটরসাইকেল থামিয়ে হাফিজুরকে কয়েকটি থাপ্পর মারেন। একপর্যায়ে তিনি মাসুমকে আটক করে ফেলেন। খবর পেয়ে স্থানীয় কালাইয়া ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহম্মেদ ওরফে মনির মোল্লা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ছাড়িয়ে নিয়ে যান। পরে তিনি আপোষ করিয়ে দেন।
ইউপি চেয়ারম্যান ফয়সাল আহম্মেদ মনির মোল্লা সংবাদমাধ্যমকে বলেন, থাপ্পর মারার বিষয়টি সঠিক না। তবে দুজনের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি হয়েছে। পুলিশ সদস্য সাদা পোশাকে থাকায় মাসুম তাকে চিনতে পারেনি। খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে দুজনের মধ্যে ভুল বোঝাবুজির অবসান করে দিয়েছি।
এ বিষয়ে কালাইয়া নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বে থাকা উপপরিদর্শক (এসআই) মো. হাবিবুর রহমান বলেন, মোটরসাইকেলের চাকা পুলিশ সদস্য হাফিজুরের পায়ে লেগেছিল। এ নিয়ে কথা-কাটাকাটি হয়েছে। কোনো মারামারি হয়নি। সাদা পোশাকে থাকায় কেউ কাউকে চিনতে না পারায় ভুল বোঝাবুজি হয়েছে।
শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.