বাউফলে রাজনৈতিক ভাবে পরিচিত কম থাকলেও জনসেবার কমতি নেই তালুকদার পরিবারের

এম,সাইদুর রহমান পটুয়াখালী প্রতিনিধি।আমরা অনেকেই রাজনীতি করি দেশের স্বার্থে, জনগণের স্বার্থে।কিন্তু বর্তমানে এরূপ কিছুটা ভিন্ন আকারে। রাজনীতি করে কেউ অটল সম্পদের মালিক হয়েছে আবার কেউ অর্থনৈতিক ভাবে পঙ্গুও হয়েছে।আবার কেউ রাজনীতিকে ব্যবহার করে দেশ ও মানুষের কল্যানে কাজ করেছে।এমন চিত্র দেখা মিলে বিভিন্ন ভাবে।এখন বাংলাদেশে যারা রাজনীতি করেন তাদের অনেকের পারিবারিক ভাবে রাজনৈতিক পরিচয় থাকে কম।এমনই রাজনৈতিক পরিবারের মাঝে মানুষের জন্য দীর্ঘ দিন ধরে কাজ করে আসছেন অথচ রাজনৈতিক ভাবে কোন পরিচয় নাই।অসহায় ও দুস্থ মানুষের পাশে থেকে কাজ করেছে যা কখনও ভাইরাল হয়নি, মানুষের দৌড় গোড়ায় সেবার প্রতিচ্ছবি নিয়ে ক্রমানয় চালাচ্ছে তাহল বাউফল উপজেলার কালিশুরী ইউনিয়নের পাতিলাপাড়া গ্রামের তালুকদার পরিবার থেকে গড়ে আসা বর্তমানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন ভাবে পরিচিত লাভ করেছে এবং বিভিন্ন সেবামূলক কাজে অংশ গ্রহন করে আসছেন সবার পরিচিত মুখ হাসীব আলম তালুকদার।

হাসীব আলম তালুকদার হচ্ছে একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান। যার বাবা দেশের জন্য লড়েছেন।যিনি ২০১৭ সালে সরকার কর্তৃক স্বাধীনতা পদক পুরস্কার প্রাপ্ত এবং মহান স্বাধীনতার যুদ্ধে ভুয়সী ভুমিকা পালন করার জন্য বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক পটুয়াখালী জেলার একমাত্র বীর উত্তম খেতাব লাভধারী এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন বিমান বাহিনীর গ্রুপ ক্যাপ্টেন দ্বায়িত্ব পালন করেছেন।যিনি ১৯৭১ সালে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে আকাশ পথে পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম যুদ্ধ জাহাজ বিধস্তকারী বৈমানিক। এছাড়াও বাংলাদেশ সরকার তার সৃতিচারণ অম্লায়ন করে রাখার জন্য রাজধানী শহর ঢাকায় একটি সড়কের নামকরণ করা হয়েছে “বীর উত্তম সামসুল আলম সড়ক স্মরণী”।

এক সাক্ষাৎকারে হাসীব আলম তালুকদার জনতার ইশতেহারকে বলেন,রাজনীতি হচ্ছে দেশ ও মানুষের কল্যানে কাজ করার জন্য। এমন রাজনীতি কারোই করা উচিত না যে রাজনীতি রাষ্ট্র বা মানুষের জন্য কোন কাজে লাগেনা না। বাউফল উপজেলায় আমার পরিবারবর্গ রাজনৈতিক ভাবে পরিচিত কম কিন্তু রাজনীতি পরিচিত ছাড়াও দেশ ও দেশের মানুষের জন্য উন্নয়নমূলক কার্যক্রম যতটুকু সম্ভব আমার পরিবার করেছে এবং সামনের দিকেও চলমান থাকবে তবে মানুষের পাশে থেকে সেবা করা বা দেশের উন্নয়নমূলক কার্যক্রম অংশ নেয়া তাতে রাজনৈতিক পরিচয় মূখ্য বিষয় না।

তিনি আরও বলেন, আমার পরিবারের পক্ষ থেকে কোন স্বার্থ ছাড়াই শিক্ষার মান উন্নয়নের ক্ষেত্রে নিজেদের অর্থয়নে বাউফলের বগা ইয়াকুব শরীফ ডিগ্রি কলেজ প্রান্তে চারতলা একটি ভবন দান করেছেন এবং কাছিপাড়া আব্দুর রশিদ মিয়া ডিগ্রি কলেজের পশ্চিম পাশে চারতলা বিশিষ্ট বৃহত্তর একটি ভবন দিয়েছে।এর ধারাবাহিকতায় কাছিপাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের চারতলা বিশিষ্ট একটা ভবন দেওয়ার পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে।

যানা যায়,’হাসীব আলম তালুকদারের পরিবার ধারাবাহিক ভাবে বিগত ৫০ বছর ধরে বাউফলের কালিশুরী,কাছিপাড়া,সূর্যমনি,বগা ও কনকদিয়া ইউনিয়নের প্রতি বছর প্রায় দশ হাজার অসহায়, দুস্থ ও গরীব পরিবারের মধ্যে ঈদ বস্ত্র, শীতার্ত মানুষকে শীত বস্র এবং বৃদ্ধ বয়স্কদের চিকিৎসা সুবিধাসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গরীব মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের মাসিক বৃত্তি প্রদানে এই মানবিক কাজগুলো তারা নিরবে নিভৃতে করে চলেছেন। যেগুলো কখনোই তারা উম্মুক্ত করতে নারাজ।বলা যায়, দেশ ও মানুষের উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড করতে তাতে রাজনৈতিক পরিচয় মূখ্য বিষয় না! এককথায় দেশের জন্য এলাকার মানুষকে ভালোবেসে দিতে চান অনেক কিছু, করতে চান অহিংস রাজনীতির প্রবত্তক।পুরা বাউফলকে করতে চান

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *