স্বপ্নের পদ্মা সেতু

ভুল চিকিৎসায় আওয়ামীলীগ নেতার মৃত্যুতে সেই ডাঃ তাসিফুলের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল.

এম.জফরান হারুন, নিজস্ব প্রতিনিধি, পটুয়াখালী:: পটুয়াখালীর বাউফল সরকারি হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ডাঃ তাসিফুল ইসলামের ভুল চিকিৎসা সহ তার গাফিলতির কারণে আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম ওরফে শেয়ার আলী হাওলাদার (৬৮) এর মৃত্যু হয়েছে বলে উল্লেখ করে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছে।

গত ২৩ শে অক্টোবর রোজ শনিবার ওই ডাঃ তাসিফুল ইসলামের বিচার চেয়ে পটুয়াখালী সিভিল সার্জন কর্মকর্তা ও বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা বরাবর নিহতের স্ত্রী অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর ) নিহতের একমাত্র ছেলে দুখু মিয়া প্রতিবেদককে এ সংবাদ জানিয়ে বলেন, আমার বাবা কালাইয়া ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি ছিলেন। তাকে ওই ডাঃ তাসিফুল ইসলাম ভুল চিকিৎসা দিয়ে এবং তার গাফিলতির কারণে মারা গিয়েছে। তাই আমার মা স্বাক্ষরিত অভিযোগপত্র দাখিল করেছেন। তদন্তের মাধ্যমে আমরা এর বিচার দাবি করছি।

উল্লেখ্য: গত শুক্রবার (১লা অক্টোবর-২০২১ ইং) সন্ধ্যার দিকে নজরুল ইসলাম শারীরিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়লে বাউফল হাসপাতালের ডাঃ তাসিফুল ইসলামের পার্সোনাল চেম্বারে নিয়ে দেখানো হয়। তখন রোগীকে দেখে ব্যবস্থাপত্র দেন ডাঃ তাসিফুল ইসলাম। এবং বলে দেন ব্যবস্থাপত্র অনুযায়ী ঔষধ সেবন করলেই রোগী ভালো হয়ে যাবে। সেখান থেকে এক আত্মীয়র বাসায় নিয়ে ব্যবস্থাপত্র অনুযায়ী ঔষধ এনে রাতের খাবার খেয়ে ওই ঔষধ সেবন করালে কিছুক্ষণ পরে রোগী হঠাৎ ভীষন অসুস্থ হয়ে পড়ে। ততক্ষনাত পরিবারের পক্ষ থেকে ওই ডাঃ তাসিফুল ইসলামকে জানালে তিনি বাউফল হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলেন। দ্রুত রোগীকে ওইমুহুর্তে হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাঃ তাসিফুল ইসলাম এসে জরুরি বিভাগে ভর্তি করেন। এমনি সময় রোগীর ভীষন হঠাৎ শ্বাস কষ্ট হতে থাকে এবং অক্সিজেন লাগিয়ে দেন রোগীর মুখে। কিছুক্ষণ পরে ডাঃ তাসিফুল ইসলাম রোগীর পরিবারের লোকজনের কাছে বলেন রোগীকে দ্রুত বরিশাল নিয়ে যেতে হবে। আমি এমবুলেন্সের ব্যবস্থা করে দিচ্ছি বলে রোগীর কাছ থেকে চলে গেলে আর আসেন না। এদিকে রোগীর অবস্থা দেখে পরিবারের লোকজন কান্নাকাটি করতে থাকেন কিন্তু ডাঃ তাসিফুল ইসলাম আসেন না বা কিছুই বলেন না। হঠাৎ করে রোগীর অক্সিজেন বন্ধ হয়ে গেলে ডাক্তারকে জানানো হয়। এসময় এক নার্স এসে রোগীর নাভির গোড়ায় একটা ইনজেকশন করে চলে যাওয়ার পরপরই রোগী মারা যান। পরে ওই ডাঃ তাসিফুল ইসলাম এসে মৃত্যুর প্রমাণপত্র দিয়ে কিছু না বলে চলে যান বলে নজরুল ইসলাম ওরফে শেয়ার আলী হাওলাদারের পরিবার জানান।

তারই প্রেক্ষিতে গত সোমবার (১৮ অক্টোবর ) বিকেলের দিকে জাতীয় সাপ্তাহিক অপরাধ তালাশ এর নিজস্ব প্রতিনিধি পটুয়াখালী জেলা শাখার এম জাফরান হারুন বরাবর ওই ডাঃ তাসিফুল ইসলামের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করে একটি রিপোর্টের জন্য আবেদন করেন।

প্রতিবেদক রিপোর্ট করতে গিয়ে যখন পটুয়াখালী সিভিল সার্জন কর্মকর্তা ও বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার বক্তব্য নিলে তখন তাদের বরাবর পরিবারের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ দেওয়ার জন্য বলা হয়।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.