ঢাকা ০৬:০৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
কাঙ্ক্ষিত মানের জনশক্তি ছাড়া বিপ্লব সাধিত হয় না- মোহাম্মদ আবদুল জব্বার বন্দরের ভয়ঙ্কর ডাকাত সর্দার মামুন গ্রেফতার বাউফলে প্রাণিসম্পদ সপ্তাহ উদ্বোধন করেন আ স ম ফিরোজ বাউফলে মাদক ব্যবসায়ী নাঈম কে ৯৯ পিস ইয়াবা সহ আটক করেছেন থানা পুলিশ  কাজিম উদ্দিন প্রধানের আকস্মিক মৃত্যুতে ফারুক হোসেনের গভীর শোক প্রকাশ বন্দর উপজেলা নির্বাচনে পিতা-পুত্রসহ ৫ চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র জমা ফিলিস্তিনিদের পাশে বিশ্বের সকল মুসলিমদের এগিয়ে আসতে হবে- ডাঃ সৈয়দ আব্দুল্লাহ মোঃ তাহের বাউফল কাশিপুরের অদম্য ১০ ব্যাচের বন্ধুমহলের ইফতার ও দোয়া অনুষ্ঠিত দুমকিতে ১ হাজার অসহায় পরিবারের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরন অয়ন ওসমানের নেতৃত্বে নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রলীগের ইফতার বিতরন

হাজীগঞ্জ কেল্লা (দূর্গ) মাদকের অভয়ারণ্য

সাইফুল ইসলাম
  • আপডেট সময় : ১২:৩৫:২৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ নভেম্বর ২০২৩ ৯৬ বার পড়া হয়েছে

হাজীগঞ্জ কেল্লা

প্রাচ্যের ড্যান্ডি খ্যাত নারায়ণগঞ্জ শহরের বৈচিত্র্যময় দিক গুলোর মধ্যে হাজীগঞ্জ কেল্লা (দূর্গ) অন্যতম। এই কেল্লা কাগজে কলমে প্রত্নতত্ত্ববিদদের তত্বাবধানে থাকলেও বাস্তবে তার উল্টো চিত্র। সন্ধ্যা হলেই হয়ে উঠে মাদকের অভয়ারণ্যে।

ঐতিহাসিক এই কেল্লার রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে হারাতে বসেছে তার সৌন্দর্য । তথ্য সূত্রে জানা যায় হাজীগঞ্জ কেল্লা, এম সার্কাস ,নবীগন্জ ঘাট এবং কিল্লরপুল এলাকায় মাদক বিক্রির রমরমা প্রতিযোগিতা চলছে।

সন্ধ্যা নামতেই এই এলাকা গুলো মাদকের আখড়ায় পরিনত হচ্ছে।রয়েছে বেশ কিছু মাদকের সিন্ডিকেট । স্কুল কলেজের ছেলে-মেয়েরা হাত বাড়ালেই পাচ্ছে গাজা,ইয়াবা, ফেন্সিডিলের মতো মাদকগুলো। এই মাদকের সিন্ডিকেট নিয়ন্ত্রণ করছে রাজনৈতিক দলের ছোট বড় নেতারা। মরন নেশা মাদকের কবলে পরে স্কুল কলেজের উঠতি বয়সের ছেলে-মেয়েরা ক্রমশেই বিভিন্ন সামাজিক অপরাধে জড়িয়ে পরছে।

অথচ নারায়ণগঞ্জ ৪ আসনের প্রভাবশালী এমপি শামীম ওসমান মাদকের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় যুদ্ধ ঘোষণা করলেও ,কে রাখে কার কথা।এই অবস্থায় সাধারণ জনগণের নাকের ডগায় চলতে থাকা মাদকের রমরমা ব্যবসা চালিয়ে রাতারাতি ধনী হওয়ার প্রবনতা অনেকের মধ্যে বিরাজমান। এখানকার অনেক মাদক ব্যাবসায়ী জেল খেটে আসার পর মাদক ব্যাবসা ছাড়ার পরিকল্পনা তো দূরে থাক,আরও গতি বাড়িয়েছে।
নাম বলতে অনিচ্ছুক একজন বলেন এম সার্কাস, পানিরকল, কিল্লারপুল এলাকার কিছু উঠতি বয়সের বখাটে ছেলে আছে তারা সারাক্ষণ কেল্লার ভিতরে নেশায় মগ্ন থাকে।আর সন্ধ্যা হলেই নারীদের নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে এমনটিও জানা যায়। তবে এবিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নিরব ভূমিকা সাধারণ জনগণকে ভাবাচ্ছে।

এহেন অবস্থায় সামাজিক মূল্যবোধ বিনষ্ট হচ্ছে বারংবার। কর্তৃপক্ষ যদি এর সুষ্ঠু প্রতিকার নিশ্চিত না করে,তাহলে আমাদের ভবিষ্যৎ অচিরেই অন্ধকারে নিমজ্জিত হবে

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

হাজীগঞ্জ কেল্লা (দূর্গ) মাদকের অভয়ারণ্য

আপডেট সময় : ১২:৩৫:২৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ নভেম্বর ২০২৩

প্রাচ্যের ড্যান্ডি খ্যাত নারায়ণগঞ্জ শহরের বৈচিত্র্যময় দিক গুলোর মধ্যে হাজীগঞ্জ কেল্লা (দূর্গ) অন্যতম। এই কেল্লা কাগজে কলমে প্রত্নতত্ত্ববিদদের তত্বাবধানে থাকলেও বাস্তবে তার উল্টো চিত্র। সন্ধ্যা হলেই হয়ে উঠে মাদকের অভয়ারণ্যে।

ঐতিহাসিক এই কেল্লার রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে হারাতে বসেছে তার সৌন্দর্য । তথ্য সূত্রে জানা যায় হাজীগঞ্জ কেল্লা, এম সার্কাস ,নবীগন্জ ঘাট এবং কিল্লরপুল এলাকায় মাদক বিক্রির রমরমা প্রতিযোগিতা চলছে।

সন্ধ্যা নামতেই এই এলাকা গুলো মাদকের আখড়ায় পরিনত হচ্ছে।রয়েছে বেশ কিছু মাদকের সিন্ডিকেট । স্কুল কলেজের ছেলে-মেয়েরা হাত বাড়ালেই পাচ্ছে গাজা,ইয়াবা, ফেন্সিডিলের মতো মাদকগুলো। এই মাদকের সিন্ডিকেট নিয়ন্ত্রণ করছে রাজনৈতিক দলের ছোট বড় নেতারা। মরন নেশা মাদকের কবলে পরে স্কুল কলেজের উঠতি বয়সের ছেলে-মেয়েরা ক্রমশেই বিভিন্ন সামাজিক অপরাধে জড়িয়ে পরছে।

অথচ নারায়ণগঞ্জ ৪ আসনের প্রভাবশালী এমপি শামীম ওসমান মাদকের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় যুদ্ধ ঘোষণা করলেও ,কে রাখে কার কথা।এই অবস্থায় সাধারণ জনগণের নাকের ডগায় চলতে থাকা মাদকের রমরমা ব্যবসা চালিয়ে রাতারাতি ধনী হওয়ার প্রবনতা অনেকের মধ্যে বিরাজমান। এখানকার অনেক মাদক ব্যাবসায়ী জেল খেটে আসার পর মাদক ব্যাবসা ছাড়ার পরিকল্পনা তো দূরে থাক,আরও গতি বাড়িয়েছে।
নাম বলতে অনিচ্ছুক একজন বলেন এম সার্কাস, পানিরকল, কিল্লারপুল এলাকার কিছু উঠতি বয়সের বখাটে ছেলে আছে তারা সারাক্ষণ কেল্লার ভিতরে নেশায় মগ্ন থাকে।আর সন্ধ্যা হলেই নারীদের নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে এমনটিও জানা যায়। তবে এবিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নিরব ভূমিকা সাধারণ জনগণকে ভাবাচ্ছে।

এহেন অবস্থায় সামাজিক মূল্যবোধ বিনষ্ট হচ্ছে বারংবার। কর্তৃপক্ষ যদি এর সুষ্ঠু প্রতিকার নিশ্চিত না করে,তাহলে আমাদের ভবিষ্যৎ অচিরেই অন্ধকারে নিমজ্জিত হবে