ঢাকা ০১:৫৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::

বন্দরে দিনমজুরকে কুপিয়ে জখম করার ঘটনায় আওয়ামীলীগ নেতা আফজালসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা

বন্দর প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ১১:৫৬:৪৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪ ৫৭ বার পড়া হয়েছে

বন্দরে দিনমজুরকে কুপিয়ে জখম করার ঘটনায় আওয়ামীলীগ নেতা আফজালসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা

বন্দরে পূর্ব শত্রুতা জের ধরে হত্যার উদ্দেশ্য দিনমজুর রফিকুল (৩৫)কে কুপিয়ে জখম করার ঘটনায় আওয়ামীলীগ নেতা আফজালসহ ৮ জনের নাম উল্লেখ্য করে থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। এ ব্যাপারে আহত দিনমজুরের ছোট বোন বৈশাখী বাদী হয়ে সোমবার (২০ মে) বেলা ১১টায় বন্দর থানায় ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

আওয়ামীলীগ নেতা আফজালসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা

যার মামলা নং- ১৯(৫)২৪ ধারা- ১৪৩/ ৩৪১/ ৩০৭/ ৩২৩/ ৩২৬/ ৩৭৯/ ৫০৬ (২) পেনাল কোড-১৮৬০। মামলার আসামীরা হলো বন্দর থানার ২৪ নং ওয়ার্ডরর মৃত মিছির আলী মিয়ার ছেলে আফজাল (৫০) তার ছোট ভাই জাহাঙ্গীর (৪৫) একই এলাকার মৃত জাকারিয়া মিয়ার দুই ছেলে রানা (২৬) ও রনি (৩০) একই এলাকার আফজাল মিয়ার ছেলে বিজয় (২২) বক্তারকান্দী এলাকার আব্দুল মতিন মিয়ার ২ ছেলে রুবেল (৩৮) ও সোহেল (৪৫) ও দেউলী এলাকার ফরিদ মিয়ার ছেলে মিটু (২৮)।

এর আগে গত রোববার (১৯মে) দুপুর ১টায় বন্দর থানার ২৪ নং ওয়ার্ডের দেউলী কবরস্থান সংলগ্ন জনৈক আহসান আলী বাড়ি সামনে পাঁকা রাস্তার উপরে এ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনাটি ঘটে। সন্ত্রাসী হামলার ঘটনার পর থেকে উল্লেখিত হামলাকারিরা পলাতক রয়েছে। মামলার বাদিনী সূত্রে জানাগেছে, বন্দর থানার দেউলী এলাকার মৃত মিছির আলী মিয়ার ছেলে আফজাল ও জাহাঙ্গীর গংদের সাথে সামাজিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আমাদের সাথে দীর্ঘ দিন ধরে পূর্ব শত্রুতা চলছিল।

আওয়ামীলীগ নেতা আফজালসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা

এর জের ধরে গত রোববার দুপুর ১টায় বাদিনী বড় ভাই রফিকুল কাজ শেষে বাড়ির ফেরার পথে দেউলী কবরস্থান সংলগ্ন জনৈক আহসান আলী বাড়ি সামনে আসলে ওই সময় বদমেজাজী আওয়ামীলীগ নেতা আফজাল ও তার ছোট ভাই জাহাঙ্গীরের নেতৃত্বে তার সন্ত্রাসী ২ ভাতিজা রানা ও রনি ও ছেলে বিজয়, রুবেল, সোহেল ও মিটুসহ অজ্ঞাত নামা আরো ২/৩ জন আমার ভাইয়ের রাস্তা গতিরোধ করে হত্যার উদ্দেশ্য বেদম ভাবে কুপিয়ে ও পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। ওই সময় হামলাকারীরা আমার ভাইয়ের কাছ থেকে অপু ব্রান্ডের একটি মোবাইল সেট ছিনিয়ে নেয়। পরে স্থানীয়রা আহতকে জখম অবস্থায় উদ্ধার করে খানপুর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢামেক হাসপাতালে প্রেরণ করে।

রাইসিকে বহনকারী হেলিকপ্টার বিধ্বস্তের ঘটনায় কেউ বেঁচে নেই

নিউজটি শেয়ার করুন

One thought on “বন্দরে দিনমজুরকে কুপিয়ে জখম করার ঘটনায় আওয়ামীলীগ নেতা আফজালসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

বন্দরে দিনমজুরকে কুপিয়ে জখম করার ঘটনায় আওয়ামীলীগ নেতা আফজালসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা

আপডেট সময় : ১১:৫৬:৪৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪

বন্দরে দিনমজুরকে কুপিয়ে জখম করার ঘটনায় আওয়ামীলীগ নেতা আফজালসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা

বন্দরে পূর্ব শত্রুতা জের ধরে হত্যার উদ্দেশ্য দিনমজুর রফিকুল (৩৫)কে কুপিয়ে জখম করার ঘটনায় আওয়ামীলীগ নেতা আফজালসহ ৮ জনের নাম উল্লেখ্য করে থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। এ ব্যাপারে আহত দিনমজুরের ছোট বোন বৈশাখী বাদী হয়ে সোমবার (২০ মে) বেলা ১১টায় বন্দর থানায় ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

আওয়ামীলীগ নেতা আফজালসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা

যার মামলা নং- ১৯(৫)২৪ ধারা- ১৪৩/ ৩৪১/ ৩০৭/ ৩২৩/ ৩২৬/ ৩৭৯/ ৫০৬ (২) পেনাল কোড-১৮৬০। মামলার আসামীরা হলো বন্দর থানার ২৪ নং ওয়ার্ডরর মৃত মিছির আলী মিয়ার ছেলে আফজাল (৫০) তার ছোট ভাই জাহাঙ্গীর (৪৫) একই এলাকার মৃত জাকারিয়া মিয়ার দুই ছেলে রানা (২৬) ও রনি (৩০) একই এলাকার আফজাল মিয়ার ছেলে বিজয় (২২) বক্তারকান্দী এলাকার আব্দুল মতিন মিয়ার ২ ছেলে রুবেল (৩৮) ও সোহেল (৪৫) ও দেউলী এলাকার ফরিদ মিয়ার ছেলে মিটু (২৮)।

এর আগে গত রোববার (১৯মে) দুপুর ১টায় বন্দর থানার ২৪ নং ওয়ার্ডের দেউলী কবরস্থান সংলগ্ন জনৈক আহসান আলী বাড়ি সামনে পাঁকা রাস্তার উপরে এ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনাটি ঘটে। সন্ত্রাসী হামলার ঘটনার পর থেকে উল্লেখিত হামলাকারিরা পলাতক রয়েছে। মামলার বাদিনী সূত্রে জানাগেছে, বন্দর থানার দেউলী এলাকার মৃত মিছির আলী মিয়ার ছেলে আফজাল ও জাহাঙ্গীর গংদের সাথে সামাজিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আমাদের সাথে দীর্ঘ দিন ধরে পূর্ব শত্রুতা চলছিল।

আওয়ামীলীগ নেতা আফজালসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা

এর জের ধরে গত রোববার দুপুর ১টায় বাদিনী বড় ভাই রফিকুল কাজ শেষে বাড়ির ফেরার পথে দেউলী কবরস্থান সংলগ্ন জনৈক আহসান আলী বাড়ি সামনে আসলে ওই সময় বদমেজাজী আওয়ামীলীগ নেতা আফজাল ও তার ছোট ভাই জাহাঙ্গীরের নেতৃত্বে তার সন্ত্রাসী ২ ভাতিজা রানা ও রনি ও ছেলে বিজয়, রুবেল, সোহেল ও মিটুসহ অজ্ঞাত নামা আরো ২/৩ জন আমার ভাইয়ের রাস্তা গতিরোধ করে হত্যার উদ্দেশ্য বেদম ভাবে কুপিয়ে ও পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। ওই সময় হামলাকারীরা আমার ভাইয়ের কাছ থেকে অপু ব্রান্ডের একটি মোবাইল সেট ছিনিয়ে নেয়। পরে স্থানীয়রা আহতকে জখম অবস্থায় উদ্ধার করে খানপুর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢামেক হাসপাতালে প্রেরণ করে।

রাইসিকে বহনকারী হেলিকপ্টার বিধ্বস্তের ঘটনায় কেউ বেঁচে নেই