ঢাকা ০৮:৩৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
বন্দরে সাজাপ্রাপ্ত ভাই বোনসহ আরও ওয়ারেন্টভূক্ত মোট ১০ আসামী গ্রেপ্তার কাঙ্ক্ষিত মানের জনশক্তি ছাড়া বিপ্লব সাধিত হয় না- মোহাম্মদ আবদুল জব্বার বন্দরের ভয়ঙ্কর ডাকাত সর্দার মামুন গ্রেফতার বাউফলে প্রাণিসম্পদ সপ্তাহ উদ্বোধন করেন আ স ম ফিরোজ বাউফলে মাদক ব্যবসায়ী নাঈম কে ৯৯ পিস ইয়াবা সহ আটক করেছেন থানা পুলিশ  কাজিম উদ্দিন প্রধানের আকস্মিক মৃত্যুতে ফারুক হোসেনের গভীর শোক প্রকাশ বন্দর উপজেলা নির্বাচনে পিতা-পুত্রসহ ৫ চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র জমা ফিলিস্তিনিদের পাশে বিশ্বের সকল মুসলিমদের এগিয়ে আসতে হবে- ডাঃ সৈয়দ আব্দুল্লাহ মোঃ তাহের বাউফল কাশিপুরের অদম্য ১০ ব্যাচের বন্ধুমহলের ইফতার ও দোয়া অনুষ্ঠিত দুমকিতে ১ হাজার অসহায় পরিবারের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরন

নারায়ণগঞ্জ শহরে হাত বাড়ালেই মিলছে অনুমোদনহীন যৌন উত্তেজক ঔষধ ও এনার্জি ড্রিংকস

স্টাফ রিপোর্টারঃ
  • আপডেট সময় : ১২:২০:১২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৯ অগাস্ট ২০২৩ ১৬৪ বার পড়া হয়েছে

হাত বাড়ালেই মিলছে যৌন উত্তেজক ঔষধ

নারায়ণগঞ্জ শহরে অলিগলিতে   দোকানগুলোতে হাত বাড়ালেই পাওয়া যায় বিএসটিআই এর অনুমোদনহীন যৌন উত্তেজক ঔষধ ও নিরব ঘাতক বিভিন্ন রকমের এনার্জি ড্রিংকস।

নেশার জগতে এখন নীরব ঘাতকের আরেক নাম এর্নাজি ড্রিংকস। বাহারী নামে বাহারী বোতলে বিক্রি হচ্ছে অনুমোদনহীন এসব এনার্জি ড্রিংকস। শহরের সবখানে ছেয়ে গেছে মাদকের উপাদান মিশ্রিত এসব এনার্জি ড্রিংকস। শহরের চাষাঢ়া,  উকিল পাড়া, ২নং রেল গেইট , টানবাজার, ১ নং রেল গেইট, কালির বাজার, রেল স্টেশন ও হোটেল মোটেল জোনসহ ফুতপাটে ছোট ছোট টেবিল নিয়ে কিছু অসাধু লোক এই অবৈধ যৌন উত্তেজক ওষুধ বিক্রয় করছে।

এছাড়াও হোটেল মোটেল জোনসহ শহরের বিভিন্ন ফার্মেসী, মুদি দোকান, ফাস্ট ফুডের দোকান ও পানের দোকানেও পাওয়া যাচ্ছে ফিলিংস, ড্রাগন, কিং ফিসার, হট ফিলিংস, জিনসিং, জিনসিং প্লাস, হর্স ফিলিংস, জিনজেন (শরবতে জিনসিং), মাশরুম, ইকলিপ, ভায়াগ্রাসহ নানা ব্র্যান্ডের বিএসটিআই এর অনুমোদনহীন বিভিন্ন রকমের এসব ভুয়া, ক্ষতিকর ঔষধ ও এনার্জি ড্রিংকস বিক্রি হচ্ছে।

উঠতি বয়সের যুুবকেরা এগুলো কিনছে দেদারছে। কিন্তু প্রকাশ্য শহরের বিভিন্ন দোকানে এসব বিক্রি হলেও এর বিরুদ্ধে প্রশাসনের কোন অভিযান নেই।

সরজমিনে দেখা গেছে, মুদি দোকান, পানের দোকান, জেনারেল ষ্টোর, কনফেকশনারি ও ফার্মেসীসহ বিভিন্ন স্থানে প্রচলিত অন্যান্য পাণীয়র সঙ্গে সাজানো আছে এসব এর্নাজি ড্রিংকস ও ঔষুধ। এসব এনার্জি ড্রিংকের গায়ে লেখা আছে মিক্সড ফ্রুড ড্রিংকস। শুধু প্রাপ্ত বয়স্কদের জন্য।

রেল স্টেশন এক দোকানদারের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, মাদকাসক্ত যুবকরাই এসব ড্রিংকস বেশী কিনছে। এগুলোর প্রতিটির দাম ৫০ থেকে ৭০ টাকা পর্যন্ত।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক সেবনকারীরা জানা যায়, এগুলি সেবনের পর শরীরে বিশেষ অনভুতি সহ যৌন উত্তেজনা সৃষ্টি করে।
বিভিন্ন গনমাধ্যমে প্রকাশিত তথ্য থেকে জানা যায় বাজারে প্রচলিত বেশ কয়েকটি এনার্জি ড্রিংকে মাদকের ভয়ংকর উপাদান পাওয়া গেছে যা আগামীতে তরুন প্রজম্মকে ভয়াবহ স্বাস্থ্য ঝুঁকির দিকে নিয়ে যাচ্ছে।

এবিষয়ে নারায়ণগঞ্জ সিভিল সার্জন ডাঃ এফ, এম মুশিউর রহমানকে মুঠোফোনে কল দিলে তিনি বলেন এটি অতন্ত্য দুঃখ জনক এসব সিরাপ বা ঔষধ ভয়ংকর ক্ষতি সাধন হতে পারে তাই আপনারা গণমাধ্যম কর্মীরা সহযোগিতা করলে আমরা আইন প্রশাসন নিয়ে অভিযানে নামবো।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

নারায়ণগঞ্জ শহরে হাত বাড়ালেই মিলছে অনুমোদনহীন যৌন উত্তেজক ঔষধ ও এনার্জি ড্রিংকস

আপডেট সময় : ১২:২০:১২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৯ অগাস্ট ২০২৩

নারায়ণগঞ্জ শহরে অলিগলিতে   দোকানগুলোতে হাত বাড়ালেই পাওয়া যায় বিএসটিআই এর অনুমোদনহীন যৌন উত্তেজক ঔষধ ও নিরব ঘাতক বিভিন্ন রকমের এনার্জি ড্রিংকস।

নেশার জগতে এখন নীরব ঘাতকের আরেক নাম এর্নাজি ড্রিংকস। বাহারী নামে বাহারী বোতলে বিক্রি হচ্ছে অনুমোদনহীন এসব এনার্জি ড্রিংকস। শহরের সবখানে ছেয়ে গেছে মাদকের উপাদান মিশ্রিত এসব এনার্জি ড্রিংকস। শহরের চাষাঢ়া,  উকিল পাড়া, ২নং রেল গেইট , টানবাজার, ১ নং রেল গেইট, কালির বাজার, রেল স্টেশন ও হোটেল মোটেল জোনসহ ফুতপাটে ছোট ছোট টেবিল নিয়ে কিছু অসাধু লোক এই অবৈধ যৌন উত্তেজক ওষুধ বিক্রয় করছে।

এছাড়াও হোটেল মোটেল জোনসহ শহরের বিভিন্ন ফার্মেসী, মুদি দোকান, ফাস্ট ফুডের দোকান ও পানের দোকানেও পাওয়া যাচ্ছে ফিলিংস, ড্রাগন, কিং ফিসার, হট ফিলিংস, জিনসিং, জিনসিং প্লাস, হর্স ফিলিংস, জিনজেন (শরবতে জিনসিং), মাশরুম, ইকলিপ, ভায়াগ্রাসহ নানা ব্র্যান্ডের বিএসটিআই এর অনুমোদনহীন বিভিন্ন রকমের এসব ভুয়া, ক্ষতিকর ঔষধ ও এনার্জি ড্রিংকস বিক্রি হচ্ছে।

উঠতি বয়সের যুুবকেরা এগুলো কিনছে দেদারছে। কিন্তু প্রকাশ্য শহরের বিভিন্ন দোকানে এসব বিক্রি হলেও এর বিরুদ্ধে প্রশাসনের কোন অভিযান নেই।

সরজমিনে দেখা গেছে, মুদি দোকান, পানের দোকান, জেনারেল ষ্টোর, কনফেকশনারি ও ফার্মেসীসহ বিভিন্ন স্থানে প্রচলিত অন্যান্য পাণীয়র সঙ্গে সাজানো আছে এসব এর্নাজি ড্রিংকস ও ঔষুধ। এসব এনার্জি ড্রিংকের গায়ে লেখা আছে মিক্সড ফ্রুড ড্রিংকস। শুধু প্রাপ্ত বয়স্কদের জন্য।

রেল স্টেশন এক দোকানদারের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, মাদকাসক্ত যুবকরাই এসব ড্রিংকস বেশী কিনছে। এগুলোর প্রতিটির দাম ৫০ থেকে ৭০ টাকা পর্যন্ত।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক সেবনকারীরা জানা যায়, এগুলি সেবনের পর শরীরে বিশেষ অনভুতি সহ যৌন উত্তেজনা সৃষ্টি করে।
বিভিন্ন গনমাধ্যমে প্রকাশিত তথ্য থেকে জানা যায় বাজারে প্রচলিত বেশ কয়েকটি এনার্জি ড্রিংকে মাদকের ভয়ংকর উপাদান পাওয়া গেছে যা আগামীতে তরুন প্রজম্মকে ভয়াবহ স্বাস্থ্য ঝুঁকির দিকে নিয়ে যাচ্ছে।

এবিষয়ে নারায়ণগঞ্জ সিভিল সার্জন ডাঃ এফ, এম মুশিউর রহমানকে মুঠোফোনে কল দিলে তিনি বলেন এটি অতন্ত্য দুঃখ জনক এসব সিরাপ বা ঔষধ ভয়ংকর ক্ষতি সাধন হতে পারে তাই আপনারা গণমাধ্যম কর্মীরা সহযোগিতা করলে আমরা আইন প্রশাসন নিয়ে অভিযানে নামবো।