ঢাকা ০১:৪৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::

অবৈধ দোকান পাটের দখলে নবীগঞ্জ হাজীগঞ্জ গুদারাঘাট

ইউসুফ আলী প্রধান
  • আপডেট সময় : ০৮:৪৯:১৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৬ অগাস্ট ২০২৩ ৩৫৭ বার পড়া হয়েছে

নবীগঞ্জ হাজীগঞ্জ গুদারাঘাট

নারায়নগঞ্জ শহরের অন্যতম প্রাচীন নবীগঞ্জ হাজীগঞ্জ গুদারাঘাট শীতলক্ষ্যা নদীর তীরবর্তী হওয়ায় গুদারা ঘাটটিকে কেন্দ্র করে মানুষের চলাফেরার জন্য সৌন্দর্য বর্ধন করার লক্ষ্যে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে নির্মাণ করা হয়েছে ওয়াকওয়ে।
এছাড়াও ঘাটটি রাতের বেলা আরও সৌন্দর্য বর্ধন করতে নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের পক্ষে থেকে এলএডি লাইট স্থাপনা করা হয়। যাতে করে সাধারন মানুষ এখানে এসে তাদের পরিবার পরিজন নিয়ে নদীর সৌন্দর্য ও মনোরম পরিবেশ উভোগ করতে পারে। কিন্তু সেই মনোরম পরিবেশ নষ্ট করে দিচ্ছে নবীগঞ্জ ঘাটের পাশে অস্থায়ী হকার ও অবৈধ দোকানপাট।
একাধিক বার জেলা  প্রশাসন ও সিটি কর্পোরেশনের পক্ষে থেকে অবৈধ দোকানপাট ও হকার উচ্ছেদ করা হলেও আবারও গড়ে উঠে এসকল দোকনপাট।
সরজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, নবীগঞ্জ হাজীগঞ্জ ঘাটে অবৈধ ভাবে রাস্তার দুইপাশে দখল করে বসেছে প্রায় অর্ধ শতাধিক দোকানপাট। নবীগঞ্জ ঘাট দিয়ে ফেরি সার্ভিস চালু হওয়ার পর যাত্রী ও গাড়ি চলাচল বেড়েছে দ্বিগুন প্রতিদিন লক্ষাধিক মানুষ এইঘাট দিয়ে পারাপার হয়। কিন্তু রাস্তার বেশির ভাগ অংশই দখল করে আছে এসব অবৈধ দোকানপাট। এর কারনে রাস্তায় হাঁটার জায়গা অনেকটাই কমে গেছে।
হকারদের দখলে নবীগঞ্জ হাজীগঞ্জ গুদারাঘাট
হকারদের দখলে নবীগঞ্জ হাজীগঞ্জ গুদারাঘাট
ঘাটটিকে কেন্দ্র করে মানুষের চলাফেরার জন্য সৌন্দর্য বর্ধন করার লক্ষ্যে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে নির্মাণ করা হয়েছে ওয়াকওয়ে তা দখল করে রেখে অবৈধ ভাবে গড়ে ওঠা দোকানপাট গুলো। অবৈধ ভাবে দোকান বসিয়ে জমজমাট ব্যবসা করছে মৌসুমী ফল ব্যবসায়ীরা। তাদের ব্যবহৃত সকল ময়লা আর্বজনা ফেলে রেখেছে ঘাটের পাশে ও ওয়াকওয়ে। এতে করে ঘাটের সৌন্দর্য বিলিনের পথে। ফেলা রাখা ময়লা আর্বজনার গন্ধে ঘাটের পরিবেশ দূষিত হচ্ছে।
এছাড়াও রাস্তার দুই পাশে অবৈধ ভাবে বসে আছে চা-পানের দোকান, পোশাকের দোকান, খাবারের দোকানসহ নানা ধরনের দোকানের দৌরাত্ম্যের কারণে রাস্তায় চলাচল করতে বিপাকে পড়ছে সাধারন মানুষ।

সূত্রমতে, নবীগঞ্জ হাজীগঞ্জ ঘাটে অবৈধ প্রায় অর্ধ শতাধিক দোকানপাট থেকে প্রতি মাসে ৮ থেকে ১০ হাজার করে টাকা নেয় স্থানীয় একটি চক্র।

মূলোত এদের ক্ষমতার বলেই এসকল দোকানিরা কাউকে তোয়াক্কা না করেই অবৈধ ভাবে রাস্তায় দখল করে যেখানে সেখানে দোকান বসিয়ে ব্যবসা করছেন তারা।
এবিষয়ে জানতে চাইলে নবীগঞ্জ ঘাট ইজারাদার সাইফুল ইসলাম রিয়েল রাজা বলেন অবৈধ দোকানপাটের বিষয়ে আমি জানিনা মাঝে মাঝে দেখি কিছু লোক এসে টাকা নিয়ে যায়, আমাদের তোয়াক্কা করেনা।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

অবৈধ দোকান পাটের দখলে নবীগঞ্জ হাজীগঞ্জ গুদারাঘাট

আপডেট সময় : ০৮:৪৯:১৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৬ অগাস্ট ২০২৩
নারায়নগঞ্জ শহরের অন্যতম প্রাচীন নবীগঞ্জ হাজীগঞ্জ গুদারাঘাট শীতলক্ষ্যা নদীর তীরবর্তী হওয়ায় গুদারা ঘাটটিকে কেন্দ্র করে মানুষের চলাফেরার জন্য সৌন্দর্য বর্ধন করার লক্ষ্যে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে নির্মাণ করা হয়েছে ওয়াকওয়ে।
এছাড়াও ঘাটটি রাতের বেলা আরও সৌন্দর্য বর্ধন করতে নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের পক্ষে থেকে এলএডি লাইট স্থাপনা করা হয়। যাতে করে সাধারন মানুষ এখানে এসে তাদের পরিবার পরিজন নিয়ে নদীর সৌন্দর্য ও মনোরম পরিবেশ উভোগ করতে পারে। কিন্তু সেই মনোরম পরিবেশ নষ্ট করে দিচ্ছে নবীগঞ্জ ঘাটের পাশে অস্থায়ী হকার ও অবৈধ দোকানপাট।
একাধিক বার জেলা  প্রশাসন ও সিটি কর্পোরেশনের পক্ষে থেকে অবৈধ দোকানপাট ও হকার উচ্ছেদ করা হলেও আবারও গড়ে উঠে এসকল দোকনপাট।
সরজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, নবীগঞ্জ হাজীগঞ্জ ঘাটে অবৈধ ভাবে রাস্তার দুইপাশে দখল করে বসেছে প্রায় অর্ধ শতাধিক দোকানপাট। নবীগঞ্জ ঘাট দিয়ে ফেরি সার্ভিস চালু হওয়ার পর যাত্রী ও গাড়ি চলাচল বেড়েছে দ্বিগুন প্রতিদিন লক্ষাধিক মানুষ এইঘাট দিয়ে পারাপার হয়। কিন্তু রাস্তার বেশির ভাগ অংশই দখল করে আছে এসব অবৈধ দোকানপাট। এর কারনে রাস্তায় হাঁটার জায়গা অনেকটাই কমে গেছে।
হকারদের দখলে নবীগঞ্জ হাজীগঞ্জ গুদারাঘাট
হকারদের দখলে নবীগঞ্জ হাজীগঞ্জ গুদারাঘাট
ঘাটটিকে কেন্দ্র করে মানুষের চলাফেরার জন্য সৌন্দর্য বর্ধন করার লক্ষ্যে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে নির্মাণ করা হয়েছে ওয়াকওয়ে তা দখল করে রেখে অবৈধ ভাবে গড়ে ওঠা দোকানপাট গুলো। অবৈধ ভাবে দোকান বসিয়ে জমজমাট ব্যবসা করছে মৌসুমী ফল ব্যবসায়ীরা। তাদের ব্যবহৃত সকল ময়লা আর্বজনা ফেলে রেখেছে ঘাটের পাশে ও ওয়াকওয়ে। এতে করে ঘাটের সৌন্দর্য বিলিনের পথে। ফেলা রাখা ময়লা আর্বজনার গন্ধে ঘাটের পরিবেশ দূষিত হচ্ছে।
এছাড়াও রাস্তার দুই পাশে অবৈধ ভাবে বসে আছে চা-পানের দোকান, পোশাকের দোকান, খাবারের দোকানসহ নানা ধরনের দোকানের দৌরাত্ম্যের কারণে রাস্তায় চলাচল করতে বিপাকে পড়ছে সাধারন মানুষ।

সূত্রমতে, নবীগঞ্জ হাজীগঞ্জ ঘাটে অবৈধ প্রায় অর্ধ শতাধিক দোকানপাট থেকে প্রতি মাসে ৮ থেকে ১০ হাজার করে টাকা নেয় স্থানীয় একটি চক্র।

মূলোত এদের ক্ষমতার বলেই এসকল দোকানিরা কাউকে তোয়াক্কা না করেই অবৈধ ভাবে রাস্তায় দখল করে যেখানে সেখানে দোকান বসিয়ে ব্যবসা করছেন তারা।
এবিষয়ে জানতে চাইলে নবীগঞ্জ ঘাট ইজারাদার সাইফুল ইসলাম রিয়েল রাজা বলেন অবৈধ দোকানপাটের বিষয়ে আমি জানিনা মাঝে মাঝে দেখি কিছু লোক এসে টাকা নিয়ে যায়, আমাদের তোয়াক্কা করেনা।