ঢাকা ০৬:৩৫ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
কাঙ্ক্ষিত মানের জনশক্তি ছাড়া বিপ্লব সাধিত হয় না- মোহাম্মদ আবদুল জব্বার বন্দরের ভয়ঙ্কর ডাকাত সর্দার মামুন গ্রেফতার বাউফলে প্রাণিসম্পদ সপ্তাহ উদ্বোধন করেন আ স ম ফিরোজ বাউফলে মাদক ব্যবসায়ী নাঈম কে ৯৯ পিস ইয়াবা সহ আটক করেছেন থানা পুলিশ  কাজিম উদ্দিন প্রধানের আকস্মিক মৃত্যুতে ফারুক হোসেনের গভীর শোক প্রকাশ বন্দর উপজেলা নির্বাচনে পিতা-পুত্রসহ ৫ চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র জমা ফিলিস্তিনিদের পাশে বিশ্বের সকল মুসলিমদের এগিয়ে আসতে হবে- ডাঃ সৈয়দ আব্দুল্লাহ মোঃ তাহের বাউফল কাশিপুরের অদম্য ১০ ব্যাচের বন্ধুমহলের ইফতার ও দোয়া অনুষ্ঠিত দুমকিতে ১ হাজার অসহায় পরিবারের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরন অয়ন ওসমানের নেতৃত্বে নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রলীগের ইফতার বিতরন

বাউফলে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে স্বীকারোক্তি নেওয়ার অভিযোগ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:০০:৪৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর ২০২৩ ৩৫ বার পড়া হয়েছে

রিপোর্টার বাউফল, পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার কালিশুরী ইউনিয়নের কালিশুরী পুলিশ ক্যাম্প রোডের এক সেনেটারি ব্যবসায়ীকে ২২/১১/২০২৩ খ্রিঃ বুধবার রাতে ঘর থেকে ডেকে নিয়ে দেশীয় অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ভয় ভিতি দেখিয়ে মিথ্যা স্বীকারোক্তি নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ৪ নং কেশবপুর ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডে ইউপি সদস্য সাইফুল ইসলামের এর বিরুদ্ধে।

ঘটনাটি ঘটেছে কালিশুরী ইউনিয়নের কালিশুরী বাজারের পুরানো ব্রিজ সংলগ্নে ফল ব্যবসায়ী সালাম খানের বাড়িতে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে সাধারণ ব্যবসায়ী আমিনুল হোসেনকে ভয়ভীতি ও প্রান নাসের হুমকি দেখিয়ে যে ঘটনা ঘটে নি সেই ঘটনার মিথ্যা স্বীকারোক্তি নিয়েছে ৪নং কেশবপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সাইফুল ইসলাম।
ভুক্তভোগী মোঃ আমিরুল হোসাইন পিতা মৃত্যু চান্দু হাওলাদার ৪নং কেশবপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের কমলাপুর গ্রামের বাসিন্দ।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ভুক্তভোগী মোঃ আমিনুল হোসাইন তিনি বলেন, আমি বাজার থেকে বাড়িতে যাওয়ার পরে আমাদের ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সাইফুল ইসলাম বাড়িতে এসে বলে আমিনুল তুমি আমার সাথে চলো,আমিনুল বলে আমি কোথায় যাব সাইফুল বলে একটি শার্ট নিয়ে আসো আমরা কালিশুরী খান বাড়িতে যাব বলে মোটরসাইকেল যোগে কালিশুরী খান বাড়িতে নিয়ে আসার পরে একটি কক্ষের গেট লাগিয়ে দিয়ে আরো দুই তিনজন সাথে নিয়ে একটি অস্ত্র দেখিয়ে চাকরি টাকা পয়সার তার নিজ হাতে লেনদেন করেছে বলে মিথ্যা স্বীকারোক্তি নিয়েছে এবং আমার নিজের মোবাইল কেড়ে নিয়ে মোবাইলের লক খুলে একাধিকবার স্বীকারোক্তি মোবাইলে ভিডিও ধারণ করে।পরে আমার মোবাইল ফোন নিয়ে যায়।
তিনি আরো বলেন, আমার ভাতিজা আমাকে ফোন করে বলেন আমার মা এবং বোন কালিশুরী ব্যাংকে টাকা তোলার জন্য যাবে আপনি আমার মা এবং বোনকে একটু সহযোগিতা করবেন কিন্তু একই একাউন্টের চেক দিয়ে দুইবার টাকা উত্তোলন করা যাবে না বলে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ জানান ব্যাংক থেকে চলে আসার পরে আমিনুলের দোকানের পিছনে ফাঁকা জায়গায় বসে ৪নং কেশবপুর ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান শাজাহান গাজীর ছেলে সজীব গাজীর সাথে কথাবার্তা বলে চলে যায় কি কথাবার্তা বলেছে আমি কিছুই জানিনা না।

এ বিষয় কেশবপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ সাইফুল ইসলামকে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তাকে ফোনে পাওয়া যায়নি।

এ বিষয় বাউফল থানার নির্বাহী কর্মকর্তা বশির গাজীকে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেব।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

বাউফলে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে স্বীকারোক্তি নেওয়ার অভিযোগ

আপডেট সময় : ১১:০০:৪৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর ২০২৩

রিপোর্টার বাউফল, পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার কালিশুরী ইউনিয়নের কালিশুরী পুলিশ ক্যাম্প রোডের এক সেনেটারি ব্যবসায়ীকে ২২/১১/২০২৩ খ্রিঃ বুধবার রাতে ঘর থেকে ডেকে নিয়ে দেশীয় অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ভয় ভিতি দেখিয়ে মিথ্যা স্বীকারোক্তি নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ৪ নং কেশবপুর ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডে ইউপি সদস্য সাইফুল ইসলামের এর বিরুদ্ধে।

ঘটনাটি ঘটেছে কালিশুরী ইউনিয়নের কালিশুরী বাজারের পুরানো ব্রিজ সংলগ্নে ফল ব্যবসায়ী সালাম খানের বাড়িতে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে সাধারণ ব্যবসায়ী আমিনুল হোসেনকে ভয়ভীতি ও প্রান নাসের হুমকি দেখিয়ে যে ঘটনা ঘটে নি সেই ঘটনার মিথ্যা স্বীকারোক্তি নিয়েছে ৪নং কেশবপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সাইফুল ইসলাম।
ভুক্তভোগী মোঃ আমিরুল হোসাইন পিতা মৃত্যু চান্দু হাওলাদার ৪নং কেশবপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের কমলাপুর গ্রামের বাসিন্দ।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ভুক্তভোগী মোঃ আমিনুল হোসাইন তিনি বলেন, আমি বাজার থেকে বাড়িতে যাওয়ার পরে আমাদের ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সাইফুল ইসলাম বাড়িতে এসে বলে আমিনুল তুমি আমার সাথে চলো,আমিনুল বলে আমি কোথায় যাব সাইফুল বলে একটি শার্ট নিয়ে আসো আমরা কালিশুরী খান বাড়িতে যাব বলে মোটরসাইকেল যোগে কালিশুরী খান বাড়িতে নিয়ে আসার পরে একটি কক্ষের গেট লাগিয়ে দিয়ে আরো দুই তিনজন সাথে নিয়ে একটি অস্ত্র দেখিয়ে চাকরি টাকা পয়সার তার নিজ হাতে লেনদেন করেছে বলে মিথ্যা স্বীকারোক্তি নিয়েছে এবং আমার নিজের মোবাইল কেড়ে নিয়ে মোবাইলের লক খুলে একাধিকবার স্বীকারোক্তি মোবাইলে ভিডিও ধারণ করে।পরে আমার মোবাইল ফোন নিয়ে যায়।
তিনি আরো বলেন, আমার ভাতিজা আমাকে ফোন করে বলেন আমার মা এবং বোন কালিশুরী ব্যাংকে টাকা তোলার জন্য যাবে আপনি আমার মা এবং বোনকে একটু সহযোগিতা করবেন কিন্তু একই একাউন্টের চেক দিয়ে দুইবার টাকা উত্তোলন করা যাবে না বলে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ জানান ব্যাংক থেকে চলে আসার পরে আমিনুলের দোকানের পিছনে ফাঁকা জায়গায় বসে ৪নং কেশবপুর ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান শাজাহান গাজীর ছেলে সজীব গাজীর সাথে কথাবার্তা বলে চলে যায় কি কথাবার্তা বলেছে আমি কিছুই জানিনা না।

এ বিষয় কেশবপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ সাইফুল ইসলামকে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তাকে ফোনে পাওয়া যায়নি।

এ বিষয় বাউফল থানার নির্বাহী কর্মকর্তা বশির গাজীকে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেব।